প্রধান মন্ত্রী দক্ষ হাতে কবিড ১৯ মহামারী মোকাবেলায় সক্ষম হয়েছেন, মন্ত্রী বীর বাহাদুর

0
242

লামা প্রতিনিধিঃ

সৃষ্টি কর্তার সহায়তায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সু নেতৃত্বের কারণে বাংলাদেশ কোভিড ১৯ এর মত বৈশ্বিক মহামারীর সম্ভাব্য প্রাণহানি সামাল দিতে সক্ষম হয়েছে বলে দৃঢ়তার সাথে উল্লেখ করেছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈ সিং। মন্ত্রী আজ আজিজনগরে বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্ভোদন ও ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে এক জনসমাবেশে উপরোক্ত মন্তব্য করেন।

মন্ত্রী বলেন মহামারীর শুরুতে বিশ্ব পরিস্থিতির বাস্তবতায় অনেকে বাংলাদেশে ভয়াবহ প্রাণহানির অশঙ্ক্ষা করেছিল। কিন্তু নেত্রীর সময়োপযোগী পদক্ষেপের ফলে আমরা তা কাটিয়ে উঠতে অনেকটা সফল হয়েছি। ভবিষ্যৎ দিনগুলোতে এ ধরণের ঝুঁকি মোকাবেলায় সর্বসাধারণের সচেতনতার কোন বিকল্প নাই বলে বলে মন্ত্রী মত ব্যক্ত করেন। মাস্ক ব্যবহারের গুরুত্ব উল্লেখ করে বীর বাহাদুর বলেন, প্রতিষেধক আবিষ্কারের পূর্বে মাস্কের যথাযত ব্যবহার একজন ব্যাক্তি, পরিবার এবং প্রতিবেশীকে ঝুঁকিমুক্ত রাখতে সক্ষম। মাত্র পাঁচ-দশ টাকার একটি মাস্ক হতে পারে আপনার হাজার টাকার রক্ষাকবচ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পার্বত্য চট্রগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী পাঁচ কোটি পঁচাত্তর লক্ষ টাকা ব্যয়ে তের টি প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন ও উদ্ভোদন করেন। আজিজনগরে একটি দশ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল নির্মাণের কার্যক্রম শুরু করার জন্য ও মন্ত্রী নির্দেশ প্রধান করেন।

সার্বিক সুশৃঙ্খল সমাবেশ আয়োজনের জন্য তিনি স্থানীয় নেতৃবৃন্দ এবং সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।

আজিজনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য কাজল কান্তি দাশ, জেলা পরিষদ সদস্য লক্ষী পদ দাস, তিং তিং ম্যা, ফাতেমা পারুল, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জিল্লুর রহমান, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড বান্দরবান ইউনিটের প্রকল্প পরিচালক মো.আব্দুল আজিজ, নির্বাহী প্রকৌশলী আবু মোহাম্মদ ইয়াছির আরাফাত’ ও লামা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মোস্তফা জামাল, লামা উপজেলা ইউএনও মোঃ রেজা রশিদ, আওয়ামিলীগ সভাপতি বাথোয়াইচিং মার্মা
সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মো. জহিরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রদীপ কান্তি দাশসহ ছাত্রলীগ, যুবলীগের নেতৃবৃন্দ এবঅং পদস্থ সরকারীী কর্মকর্তা বৃন্দ।